Recent stories

রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন সংবাদ

সংবাদ

রামকৃষ্ণ মিশনের 113তম বার্ষিক সাধারণ সভা রবিবার, 18 ডিসেম্বর 2022, বেলা 3.30টায় বেলুড় মঠে অনুষ্ঠিত হয়েছিল, যেখানে রামকৃষ্ণ মঠ এবং রামকৃষ্ণ মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ 202122 আর্থিক বছরে রামকৃষ্ণ মিশন পরিচালনা সমিতির কাজের ওপর প্রতিবেদন (রিপোর্ট) উপস্থাপন করেন। প্রতিবেদনের একটি সারসংক্ষেপ এখানে দেওয়া হলো: ....

বর্ণিল পথচলা

প্রচ্ছদ ভাবনা

স্বামী বিবেকানন্দ শ্রীরামকৃষ্ণের করুণামুখর অবতরণের প্রেক্ষাপট অনুসন্ধানে বলেছেন: “প্রত্যেক পতনের পর পুনরুত্থিত সমাজ অন্তর্নিহিত সনাতন পূর্ণত্বকে সমধিক প্রকাশিত করিতেছেন এবং সর্বভূতান্তর্যামী প্রভুও প্রত্যেক অবতারে আত্মস্বরূপ সমধিক অভিব্যক্ত করিতেছেন।” ....

Featured story

বর্ণিল পথচলা বর্ণিল পথচলা

স্বামী বিবেকানন্দ শ্রীরামকৃষ্ণের করুণামুখর অবতরণের প্রেক্ষাপট অনুসন্ধানে বলেছেন: “প্রত্যেক পতনের পর পুনরুত্থিত সমাজ অন্তর্নিহিত সনাতন পূর্ণত্বকে সমধিক প্রকাশিত করিতেছেন এবং সর্বভূতান্তর্যামী প্রভুও প্রত্যেক অবতারে আত্মস্বরূপ সমধিক অভিব্যক্ত করিতেছেন।” ...

উদ্বোধন: এক অরূপ অভিযাত্রা উদ্বোধন: এক অরূপ অভিযাত্রা

শ্রীরামকৃষ্ণের পূত চরিত্র ভারতবর্ষের সনাতন আত্মার অভিব্যক্তিতে শান্ত সমাহিত। তাঁহার ভালবাসার কোনো সীমা-পরিসীমা ছিল না। স্বামী বিবেকানন্দ বলিতেন, তাঁহার আবির্ভাবে জগতে এক আধ্যাত্মিক ভাবতরঙ্গের সূচনা হইয়াছে। ...

Spotlights

দিব্যবাণী

মাতঃ প্রণমি শ্রীপদে৷৷ মঙ্গল-কারিণী শিবা, ত্রাতা শম্ভু উমাপতি, সিদ্ধিদাতা গণেশাদি আছেন যত দেবতা, রবি গুরু যত গ্রহ, পুরন্দরাদি দিক্‌পতি

শুভেচ্ছা-বাণী

ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংস, শ্রীমা সারদাদেবী ও স্বামী বিবেকানন্দের আশীর্বাদে উদ্বোধন পত্রিকা একশো পঁচিশ বছরে পদার্পণ করছে। যুগপুরুষ স্বামী বিবেকানন্দের মানসসঞ্জাত উদ্বোধন পত্রিকা কেবলমাত্র একটি সাময়িক পত্র নয়, ভারতের চিরন্তন বাণীর একটি সতত সঞ্চরণশীল প্রাণকেন্দ্রবিশেষ

শুভেচ্ছা

১৮৯৯ সালে স্বামী বিবেকানন্দ প্রবর্তিত উদ্বোধন পত্রিকা ১২৫ বর্ষে পদার্পণ করছে জেনে অত্যন্ত আনন্দিত হলাম। রামকৃষ্ণ-ভাবান্দোলনের ইতিহাসে এটি একটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা।

শুভেচ্ছা

আগামী ১ মাঘ ১৪২৯ স্বামীজীর প্রিয় উদ্বোধন পত্রিকা ১২৫ বছরে পদার্পণ করছে। এই উপলক্ষে একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশিত হবে জেনে অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছি। স্বামীজীর একান্ত আগ্রহ ও উৎসাহে ...

শুভেচ্ছা

ভগবান শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণদেব তাঁর লীলাসংবরণের কিছুদিন পূর্বে একটি অদ্ভুত কার্য নির্বাহ করেছিলেন। সেটি হলো একটি নতুন ধরনের সন্ন্যাসী সংঘের স্থাপনা। ভগবান বুদ্ধদেবের ২৫০০ বছর পরে সম্পূর্ণ নতুন ধরনের একটি সন্ন্যাসী সংঘের সূচনা করা হলো।

উদ্বোধন: এক অরূপ অভিযাত্রা

শ্রীরামকৃষ্ণের পূত চরিত্র ভারতবর্ষের সনাতন আত্মার অভিব্যক্তিতে শান্ত সমাহিত। তাঁহার ভালবাসার কোনো সীমা-পরিসীমা ছিল না। স্বামী বিবেকানন্দ বলিতেন, তাঁহার আবির্ভাবে জগতে এক আধ্যাত্মিক ভাবতরঙ্গের সূচনা হইয়াছে।

বর্ণিল পথচলা

স্বামী বিবেকানন্দ শ্রীরামকৃষ্ণের করুণামুখর অবতরণের প্রেক্ষাপট অনুসন্ধানে বলেছেন: “প্রত্যেক পতনের পর পুনরুত্থিত সমাজ অন্তর্নিহিত সনাতন পূর্ণত্বকে সমধিক প্রকাশিত করিতেছেন এবং সর্বভূতান্তর্যামী প্রভুও প্রত্যেক অবতারে আত্মস্বরূপ সমধিক অভিব্যক্ত করিতেছেন।”

শুভেচ্ছা

আমি জেনে খুবই খুশি হলাম যে, ‘উদ্বোধন' পত্রিকার ১২৫ বছর উপলক্ষে একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশিত হতে চলেছে। নিঃসন্দেহে এটি একটি বিশেষ পদক্ষেপ।