আসলে ঈশ্বরের বাসনা দিয়ে আদিখণ্ডের শুরুযেখানে দর্পণে নিজের রূপে মোহিত স্বয়ং শ্রীকৃষ্ণ বাসুদেবনারীজন্মবাসনা করলেন; রাধা কী প্রকারে তাঁর বিভায় মুগ্ধকতখানি প্রণয়ের থালায় রাধা ঢেকে রেখেছেন তাঁর বিরহরাধাহৃদয়ের সংবেদনে প্রিয়তমের সুখ কত অসীম,কতখানি দেশকালব্যাপীসেই তিন অপূর্ণতার আকর্ষণে সচ্চিদানন্দ স্বয়ং বাসুদেবমর্ত্যে এলেন লীলাময় চৈতন্যস্বরূপেসেই মাহেন্দ্রক্ষণে,রাধা ও কৃষ্ণ যুগলে একাবয়বে ভাগ হয়েছিলেনআর আমাদের অশ্রুভারাতুর মেয়েটি, তারপ্রেমবিলাসিনী গোপন বিষাদ, ঘুমের চাদরে মুড়ে গড়িয়ে দিলেনফ্যাকাশে সূর্যাস্তের লাল ধুলোয় অনেক দূরের কোনও গৃহসন্নিকর্ষেছুঁয়ে থাকা সেপাই বুলবুলের মাধবীচূড়ায়সেই সিঁদুর না-পরা মেয়েযে আর কাউকে চেয়ে বসেছিল,পূর্বরাগ অনুরাগ বিপ্রলম্ভের একমুঠি ফাগবাংলা কবিতার বুকের থেকে কেমুছে ফেলেছে কে জানে!

Read the Digital Edition of Udbodhan online!

Subscribe Now to continue reading

₹80/year

Start Digital Subscription

Already Subscribed? Sign in